বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে গেল বছর ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। সে হিসেবে আজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটির একবছর পূর্ণ।

সরকারের সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ২৯ মার্চের পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সম্ভাবনা রয়েছিল। তবে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির অবনতির কারণে এ সিদ্ধান্তের রিভিউ হতে পারে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বিঘ্নিত হয়েছে গত এক বছর। সংক্রমণ পরিস্থিতিতে গত বছরের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা এবং জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।

গত বছরের এইচএসসি পরীক্ষাও হয়নি। পরীক্ষা না নিয়েই এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়নের ফল গত জানুয়ারিতে ঘোষণা করা হয়। এছাড়াও প্রাথমিক, নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা ছাড়াই শিক্ষার্থীদের ওপরের শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হলে ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটির ঘোষণা দেওয়া হয়। যদিও ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ছিল। সে কারণে ১৮ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি কার্যকর ধরা হয়। প্রথমে কওমি মাদরাসাসহ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হলেও পরে কওমি মাদরাসা চালুর নির্দেশনা দেয় সরকার। তবে বন্ধ থাকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।