আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী হাফিজ শেখকে তার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। দেশে ব্যাপকভাবে মুদ্রাস্ফীতি ঘটেছে তবে তিনি তা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়েছেন- এমন অভিযোগে তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। পার্সটুডে।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পাকিস্তানের অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করার লড়াই চালাচ্ছেন এবং এই লক্ষ্যে তিনি শুধু হাফিজ শেখকে অব্যাহতি দেন নি বরং তিনি তার মন্ত্রিসভায় ব্যাপক রদবদল আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

পাকিস্তানের শিল্পমন্ত্রী হাম্মাদ আজহারকে নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। এ নিয়ে গত আড়াই বছরের মধ্যে ইমরান খান দেশে তিনজন অর্থমন্ত্রী নিয়োগ দিলেন।

আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানে কাজ করার অভিজ্ঞতা ছিল হাফিজ শেখের; এমনকি তিনি পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী হিসেবেও আগে দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপরও তার বিরুদ্ধে মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার অভিযোগ আনা হয়।

২০১৮ সালের আগস্ট মাসে ইমরান খান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। সেই সময় থেকেই তিনি দেশের অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করার সংগ্রাম চালাচ্ছেন। গত বছর পাকিস্তানের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল নেতিবাচক; চলতি বছরেও সে অবস্থার পরিবর্তনের কোনো পূর্বাভাস নেই।