আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উত্তর কোরীয় দূতাবাসের কূটনীতিকেরা মালয়েশিয়ার দূতাবাস ত্যাগ করেছেন। রুশ বার্তাসংস্থা স্পুতনিক জানিয়েছে, গতরাতেই উত্তর কোরিয়ার কূটনীতিকরা কুয়ালালামপুর ত্যাগ করেছেন এবং উত্তর কোরিয়ার দূতাবাস আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। পার্সটুডে।

মালয়েশিয়ার একটি আদালত উত্তর কোরিয়ার একজন নাগরিককে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সমর্পণের রায় দেওয়ার পর দুই দেশের সম্পর্কে টানাপোড়েন বৃদ্ধি পায় এবং উত্তর কোরিয়া সম্পর্ক ছিন্ন করে। উত্তর কোরিয়ার ঐ নাগরিকের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কুয়ালালামপুরের উপকণ্ঠে অবস্থিত উত্তর কোরীয় দূতাবাসের পতাকা ও নামফলক সরিয়ে নেয়া হয়েছে। কূটনীতিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদেরকে দু’টি বাসে করে বিমান বন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এবং তারা চীনগামী একটি ফ্লাইটে কুয়ালালামপুর ত্যাগ করেন।

২০১৭ সালে কুয়ালালামপুর বিমান বন্দরে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সৎভাই খুন হওয়ার পর থেকে দুটি দেশের সম্পর্কে অবনতি ঘটতে শুরু করে।

উত্তর কোরিয়ার যে নাগরিককে নিয়ে এই টানাপোড়েন তার নাম মান কুল মিয়ুং। তিনি প্রায় ১০ বছর ধরে মালয়েশিয়ায় বসবাস করে আসছিলেন, কিন্তু ২০১৯ সালে মার্কিন সরকার এই নাগরিককে হস্তান্তর করতে কুয়ালালামপুরের প্রতি আহ্বান জানায়। এরপরই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।