আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান বলেছে, ভূমধ্যসাগরে পণ্যবাহী কার্গোজাহাজ সন্ত্রাসী হামলার ক্ষেত্রে ইহুদিবাদী ইসরাইলকে প্রধানত সন্দেহ করা হচ্ছে। ইরানের একটি সূত্র নূর নিউজকে এ কথা জানিয়েছেন। পার্সটুডে।

ওই সূত্র বলেছেন, জাহাজের বিদ্যমান ভূ-রাজনৈতিক অবস্থান এবং এর গন্তব্য বিবেচনা করে জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে যে, ইহুদিবাদী ইসরাইল এই সন্ত্রাসবাদী হামলা চালিয়েছে।

ইসলামিক রিপাবলিক অব ইরান শিপিং লাইন গ্রুপের মুখপাত্র আলী কিয়াসি শুক্রবার নূর নিউজকে জানান, তাদের শিপিং লাইনের একটি কার্গোজাহাজে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। তিনি জানান, জাহাজটি ভূমধ্যসাগর দিয়ে ইউরোপের দিকে যাচ্ছিল।

তিনি জানান, একটি বিস্ফোরক বস্তু জাহাজে আঘাত করলে জাহাজের ছোটখাটো পর্যায়ের ক্ষতি হয় তবে কেউ হতাহত হয় নি। এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে গত বুধবার। জাহাজে বিস্ফোরণের পর ইরানের তদন্ত টিম এরইমধ্যে কাজ শুরু করেছে। ওই টিমের একজন সদস্য নূর নিউজকে জানিয়েছেন, অনেক উচ্চতা থেকে জাহাজে কোনো বিস্ফোরক দ্রব্য আঘাত হেনেছে এবং ধারণা করা হচ্ছে কোন উড়ন্ত বস্তু থেকে ওই বিস্ফোরক দ্রব্য ছোড়া হয়েছে।

ইসরাইলের কয়েকটি গণমাধ্যমও শুক্রবার জানিয়েছে যে, এই সন্ত্রাসী হামলার পেছনে তেল আবিব জড়িত থাকতে পারে। এ ব্যাপারে ইসরাইলের কোনো কর্মকর্তা কোন রকমের মন্তব্য করেন নি।

সম্প্রতি মার্কিন দৈনিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ২০২০ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত ইহুদিবাদী ইসরাইল সিরিয়া অভিমুখী বহুসংখ্যক ইরানি জাহাজ কিংবা ইরানি পণ্যবাহী জাহাজে মাইনসহ বিভিন্ন রকমের নৌ অস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে আসছে।