স্বাস্থ্যগত কারণে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে। শুক্রবার জাপানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবারই জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের একটি সংবাদ সম্মেলন করার কথা। ধারণা করা হচ্ছে, সেখানেই পদত্যাগের ঘোষণা দেবেন তিনি।

দেশটির জাতীয় সংবাদমাধ্যম এনএইচকের জানিয়েছে, স্বাস্থ্য খারাপ হওয়ার কারণে সরকারের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়াতে চান না অ্যাবে। তাই কঠিন সিদ্ধান্তটা নিয়ে ফেলতে যাচ্ছেন তিনি।

অ্যাবেকে নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল গত ১৭ আগস্ট টোকিওর একটি হাসপাতালে দেখা যাওয়ার পর। অবশ্য তার দলের কর্মকর্তারা বলেছিলেন, নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতেই হাসপাতালে যাওয়া। ওইবার সাড়ে ৭ ঘণ্টা হাসপাতালে থেকে বাড়ি ফেরেন শিনজো অ্যাবে। তবে অ্যাবে যে মানসিক অবসাদে ভুগছেন তা অস্বীকার করেননি তারা।

এক সপ্তাহ না যেতে আবারো আবেকে হাসপাতালে দেখা গেছে। সরকারি সূত্র বলেছে, স্বাস্থ্য পরীক্ষার ফলাফল জানতেই এবার সেখানে গেছেন প্রধানমন্ত্রী। সব শঙ্কা কাটাতেই শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকাল পাঁচটায় স্বাস্থ্য নিয়ে কথা বলবেন আবে। কিন্তু তার আগেই সংবাদমাধ্যমের খবর মেয়াদ ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত থাকলেও তা শেষ না হতেই বিদায় নেবেন জাপানের দীর্ঘদিনের প্রধানমন্ত্রী।

৬৫ বছর বয়সী আবে ২০১২ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন, এখনো তিনি সরকারের নেতৃত্বে। এর আগে আলসারেটিভ কোলাইটিসে ভোগার কারণে ২০০৭ সালে প্রথম মেয়াদের দায়িত্ব থেকে ইস্তফা দেন। চিকিৎসা করে এই অসুখ অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছেন অ্যাবে। কিন্তু এ মাসে তার স্বাস্থ্য নিয়ে গুঞ্জন তোলে কিছু জাপানি মিডিয়া।