চীন অভিযোগ করেছে, দেশটির সামরিক মহড়ার ওপর ‘গুপ্তচরবৃত্তি’ করার জন্য আমেরিকা চীনের ‘বিমান উড্ডয়নমুক্ত’ এলাকায় একটি ইউ-২ গোয়েন্দা বিমান পাঠিয়েছে। আমেরিকার এ পদক্ষেপকে ‘উসকানিমূলক’ বলে বর্ণনা করে এর নিন্দা জানিয়েছে চীন। পার্সটুডে।

মার্কিন সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, তাদের বিমানটি ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের আকাশে উড্ডয়ন করেছে এবং ‘আন্তর্জাতিক আইনের আওতায়’ বিমানটিকে ওড়ানো হয়েছে।

চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেছেন, দেশটির সেনাবাহিনী যখন সামরিক মহড়ায় ব্যস্ত ছিল তখন সেদেশের ‘নিষিদ্ধ আকাশসীমায়’ আমেরিকার দূরপাল্লার গোয়েন্দা বিমানটি অনুপ্রবেশ করে।

ওই সামরিক মহড়া শুরুর আগে ওই এলাকার আকাশকে চীন ‘বিমান উড্ডয়নমুক্ত এলাকা’ হিসেবে ঘোষণা করেছিল। চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরো বলেছে, বিমানটিকে ‘ভুলবশতঃ’ গুলি করে ভূপাতিত করার আশঙ্কা ছিল; কিন্তু চীনের সেনাবাহিনী ধৈর্যের চরম পরাকাষ্ঠা প্রদর্শন করেছে।

চীনা সেনাবাহিনী এখন পর্যন্ত সেদেশের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশকারী আমেরিকার পাঁচটি ইউ-২ গোয়েন্দা বিমান ভূপাতিত করেছে।

চীন স্পষ্ট করে বলেনি, ঠিক কোন এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। তবে চীনের উত্তর ও উত্তর-পূর্ব উপকূলের বুহাই সাগরে বর্তমানে সেদেশের সেনাবাহিনী মহড়া চালাচ্ছে। এ ছাড়া, পীত সাগর ও দক্ষিণ চীন সাগরেও চীনের সামরিক মহড়া চলছে।