পার্কে প্রেম বা আড্ডা কিংবা সন্ধ্যায় বা অফিসে কাজের ফাঁকে মুখে বাদাম না দিলে জমেই উঠে না। কেউ কেউ তো রাস্তায় চলতে ফিরতেও বাদাম খেয়ে থাকেন। এদের সকলেরই বিশ্বাস বাদামে পুষ্টিগুণ অনেক, তাই নিয়মিত খাওয়া হয়। কিন্তু এর তো খারাপ দিকও রয়েছে। বিশেষ সেলিব্রেশনে প্রায় সকলেই ড্রাই ফুডস উপহার দিয়ে থাকেন। সেদিক থেকে বাদাম খুবই পছন্দের খাবার। বাদামে যেমন পুষ্টিগুণ রয়েছে আবার এর কিছুটা ক্ষতিকর দিকও রয়েছে। এবার তাহলে অতিরিক্ত বাদাম খাওয়ার ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরা হলো-

চীনা বাদাম খাওয়ার ফলে অ্যালার্জির সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অনেকের আবার বাদাম খাওয়ার পরই সমস্যা দেখা দেয়। যারা অল্পতেই গ্যাসের সমস্যায় ভুগে থাকেন তাদের জন্য বাদাম খুবই ক্ষতিকারক। কেননা, বাদাম খাওয়ার ফলে গ্যাসের সমস্যা আরও বৃদ্ধি পায়।

সেনসিটিভ স্কিনের ক্ষেত্রে চীনা বাদাম একদম খাওয়া উচিত নয়। এই বাদামে থাকা উপাদানগুলো শরীরে প্রবেশ করে ত্বকের সমস্যা সৃষ্টি করে এবং চুলকানির সৃষ্টি করে। এছাড়াও যারা শ্বাস কষ্টে ভোগেন তাদেরও বাদাম এড়িয়ে চলা উচিত। বাদাম থেকে হাঁপানি বা শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা আরও বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকে। তাই মন চাইলেই আড্ডা, প্রেম বা কাজের ফাঁকে বাদাম নয়। খাওয়ার আগে অন্তত দুবার চিন্তা ভাবনা করুন এবং তার মাত্রা ঠিক রাখার চেষ্টা করুন।

সূত্র : এশিয়ানেট নিউজ