সৌদি আরবের সাবেক গোয়েন্দা প্রধান সাদ আল জাবরির আরো একজন আত্মীয়কে গ্রেফতার করা হয়েছে। বর্তমানে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা জাবরির পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সৌদি পুলিশ সাবেক এই শীর্ষস্থানীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তার জামাতা সালিম আল মুজাইয়্যেনিকে আটক করেছে। পার্সটুডে।

এর আগে গত মার্চ মাসে জাবরির দুই সন্তান ও ভাইকে আটক করা হয়। সাদ আল জাবরি সাবেক সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন নায়েফের উপদেষ্টার দায়িত্বও পালন করেছেন। বর্তমান যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান ২০১৭ সালের ২১ জুন নায়েফকে সরিয়ে দিয়ে যুবরাজের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

সাদ আল জাবরি অভিযোগ করেছেন, সৌদি সরকার তাকে হত্যা করতে চায়। তার পরিবার মনে করছে, তার আত্মীয়-স্বজনকে আটক করে জাবরিকে দেশে ফিরতে বাধ্য করতে চায় রিয়াদ। জাবরি বলছেন, মুহাম্মাদ বিন সালমান কি প্রক্রিয়ায় যুবরাজের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন সে তথ্য তিনি জানার কারণে সৌদি সরকার তাকে টার্গেট করেছে। তিনি আরো দাবি করেছেন, ২০১৮ সালে তাকে হত্যা করার জন্য সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীর একটি দল কানাডায় গিয়েছিল। তিনি ওয়াশিংটনের একটি আদালতে দায়ের করা মামলায় আনুষ্ঠানিকভাবে এই অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডের পরপরই তাকে হত্যার জন্যও ঘাতক স্কোয়াড পাঠিয়েছিল যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান। কিন্তু কানাডার বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হলে ওই স্কোয়াডকে দেশটিতে ঢুকতে না দিয়ে বিমানবন্দর থেকেই ফিরতি ফ্লাইটে তাদেরকে সৌদি আরবে পাঠিয়ে দেয়া হয়।

সৌদির সাবেক গোয়েন্দা প্রধান সাদ আল-জাবরি প্রায় তিন বছর আগে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় নেন এবং তখন থেকে তিনি দেশটিতে নিরাপত্তা সুরক্ষা ভোগ করছেন।