আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসি বলেছেন, ২০১৫ সালে সই হওয়া পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবিত করতে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান যে তিন মাসের সুযোগ দিয়েছে সমঝোতার অংশীদারদের তা গ্রহণ করা উচিত। পার্সটুডে।

গতকাল (মঙ্গলবার) ইউরোপীয় পার্লামেন্টের তিনটি কমিটির সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে গ্রোসি একথা বলেন। তিনি জানান, পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবিত করার লক্ষ্য নিয়ে আইএইএ’র নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে তিনি দুই পক্ষের সঙ্গে কথা বলছেন।

গ্রোসি বলেন, এই সমঝোতায় ফিরে আসা আমেরিকার পক্ষে সম্ভব তবে আলোচনায় বসার বিষয়ে দুই পক্ষের প্রস্তুতি থাকা দরকার।

আইএইএ’র মহাপরিচালক বলেন, “আমেরিকা পরমাণু সমঝোতায় ফিরতে চায় তবে অবশ্যই বেশ কিছু ইস্যু পরিষ্কার হতে হবে। এটি কঠিন কাজ তবে অসম্ভব নয়।”

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমেরিকা ২০১৮ সালে এককভাবে পরমাণু সমঝোতা থেকে বের হয়ে যায় কিন্তু জো বাইডেন আবার এতে ফেরার কথা বলছেন। তিনি এও বলছেন যে, পরমাণু সমঝোতায় আমেরিকার ফেরার আগে ইরানকে এ সমঝোতা পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। জবাবে ইরান বলেছে, আমেরিকা পরমাণু সমঝোতা থেকে বের গিয়েছিল তাকেই আবার বিনা শর্তে ফিরতে হবে। তার আগে তেহরানে ওপর থেকে সমস্ত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে হবে।

এ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় ইরান সমঝোতার অন্য পক্ষগুলোকে তিন মাসের সময় দিয়েছে। এর মধ্যে ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করলে আরো কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে তেহরান। এরইমধ্যে ইরান পরমাণু সমঝোতার বেশ কিছু ধারা বাস্তবায়ন স্থগিত করেছে এবং ২০ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ শুরু করেছে।