আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস ঘোষণা করেছেন, তার দেশ ইরানের কাছ থেকে একটি ‘গঠনমূলক প্রস্তাবের’ অপেক্ষায় রয়েছে। তিনি সোমবার সন্ধ্যায় ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইরানের পরমাণু সমঝোতায় স্বাক্ষরকারী দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসার যে প্রস্তাব তার দেশ দিয়েছে সে ব্যাপারে ওয়াশিংটন তেহরানের পক্ষ থেকে একটি গঠনমূলক প্রস্তাব আশা করছে। পার্সটুডে।

ইরান তার নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনায় অত্যাধুনিক সেন্ট্রিফিউজ দিয়ে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার যে কাজ শুরু করেছে সে সম্পর্কে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রাইস বলেন, এ ধরনের চ্যালেঞ্জ প্রতিদিনই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ বাড়িয়ে দিচ্ছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স দাবি করেছে, আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার প্রধান রাফায়েল গ্রোসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছেন, ইরান তার নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনায় অত্যাধুনিক আইআর-২এম সেন্ট্রিফিউজ দিয়ে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ শুরু করেছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি এমন একটি চ্যালেঞ্জ যা কূটনৈতিক উপায়ে সমাধান করতে হবে। তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের প্রথম দিন থেকেই এ বিষয়টি নিয়ে মিত্র দেশগুলোর পাশাপাশি কংগ্রেস সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেন।

হোয়াইট হাউজ সাম্প্রতিক সময়ে দাবি করেছে, তারা আমেরিকাকে ইরানের পরমাণু সমঝোতায় ফিরিয়ে আনতে চায় যা থেকে সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আমেরিকাকে বের করে নিয়েছিলেন। কিন্তু বাইডেন প্রশাসন বাস্তবে এখন পর্যন্ত এই সমঝোতায় ফিরে আসার লক্ষ্যে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।