আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইতালি বলছে, সাময়িকভাবে তারা অ্যাস্ট্রোজেনেকা/অক্সফোর্ড উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন স্থগিত করেছে। সিসিলি দ্বীপে দুজন পুরুষ রোগী আ্যস্ট্রোজেনেকার ভ্যাকসিন নেয়ার পর মৃত্যু বরণ করার কারণে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পার্সটুডে।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) এক বিবৃতিতে ইতালির ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এআইএফএ এই নিষেধাজ্ঞা জারি করে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পূর্ব সতর্কতামূলক দেশজুড়ে আ্যস্ট্রোজেনেকার ভ্যাকসিন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

অ্যাস্ট্রেজেনেকার ভ্যাকসিন গ্রহণের পর এর আগেও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে লোকজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। বলা হচ্ছে- এই ভ্যাকসিন নেয়ার পর অনেকের দেহে রক্ত জমাট বেঁধে যাচ্ছে এবং এ নিয়ে ইউরোপজুড়ে একরকমের ভয় ছড়িয়ে পড়েছে। তবে এখনো সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিত হওয়া যায় নি যে, এই ভ্যাকসিন গ্রহণের কারণে এ সমস্ত সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

ইতালির ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থাও বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারে নি। তবে ইউরোপীয় ওষুধ সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে প্রয়োজনীয় যেকোনো ব্যবস্থা নিতে তারা প্রস্তুত বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

মৃত্যুর ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ইতালির নৌবাহিনী ৪৩ বছর বয়সী একজন অফিসার এবং ৫০ বছর বয়সী একজন পুলিশ কর্মকর্তা মারা গেছেন।

এর আগে ইউরোপের দেশ ডেনমার্ক, আইসল্যান্ড, নরওয়ে, এস্তোনিয়া, লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া এবং লুক্সেমবার্গ সাময়িকভাবে অ্যাস্ট্রাজেনেকা/অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন নিষিদ্ধ করেছে। সে ক্ষেত্রে ইতালি হচ্ছে ইউরোপের অষ্টম দেশ যারা এই ভ্যাকসিন নিষিদ্ধ করল।