আরো ১৯ জোড়া ট্রেন আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হতে যাচ্ছে। মঙ্গলবার রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মো. শরিফুল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চালু হতে যাওয়া ট্রেনগুলো হলো- মহানগর গোধূলী/প্রভাতী, জয়ন্তীকা এক্সপ্রেস, উপবন এক্সপ্রেস, তূর্ণা এক্সপ্রেস, মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস, জামালপুর এক্সপ্রেস, দ্রুতযান এক্সপ্রেস, ধুমকেতু এক্সপ্রেস, রংপুর এক্সপ্রেস, সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস, মহানন্দা এক্সপ্রেস (খুলনা-চাঁপাই), চাঁপাই-রহনপুর লোকাল, মহানন্দা এক্সপ্রেস (রহনপুর-খুলনা), পদ্মরাগ কমিউটার, নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস, সাগরিকা কমিউটার, উত্তরা এক্সপ্রেস, মহুয়া কমিউটার এবং বেতনা এক্সপ্রেস।

এদিকে, ট্রেন পরিচালনার ক্ষেত্রে কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যাত্রার দিনসহ ১০ দিন আগে অগ্রিম টিকেট ইস্যু করা হবে। করোনার কারণে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে কোচের ধারণক্ষমতার ৫০ ভাগ টিকেট বিক্রি অব্যাহত থাকবে।

একইসঙ্গে মোবাইল অ্যাপ এবং অনলাইনে টিকেট ক্রয় করা যাবে। তবে অনলাইনে ক্রয়কৃত টিকেট ফেরত কিংবা রিফান্ড করা যাবে না। সেইসঙ্গে সব আন্তঃনগর ট্রেনে স্ট্যান্ডিং টিকেট বিক্রি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ থাকবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নেয়া কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ২৪ মার্চ যাত্রীবাহী ট্রেন পরিচালনা বন্ধ করে রেল কর্তৃপক্ষ। এরপর গত ৩১ মে প্রথম দফায় ৮ জোড়া আন্তনগর ট্রেন চালু করা হয়। সে সময় স্বাস্থ্যবিধি বিবেচনায় নিয়ে অনলাইনে টিকেট বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিলো।

পরবর্তীতে ৩ জুন দ্বিতীয় দফায় আরো ১১ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন বাড়ানো হয়। তবে কিছুদিন পর যাত্রী সংকটে দুই জোড়া ট্রেন বন্ধ হয়ে যায়। গত ১৬ আগস্ট নতুন করে আরো ১২ জোড়া আন্তঃনগর ও এক জোড়া কমিউটার ট্রেনসহ মোট ১৩ জোড়া ট্রেন নতুন করে চলাচল শুরু করেছে। অবশেষে আরো ১৯ জোড়া ট্রেন চালু হতে যাচ্ছে।