আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি আরবের তেল মন্ত্রণালয় দেশটির রাজধানী রিয়াদে রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত তেল কোম্পানি আরামকো’র একটি শোধনাগারে ইয়েমেনের ড্রোন হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ওই মন্ত্রণালয় বলেছে, হামলার ফলে তেল শোধনাগারটিতে আগুন ধরে গেছে। পার্সটুডে।

তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি বলে দাবি করেছে ওই মন্ত্রণালয়। রিয়াদ এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, ইয়েমেনিরা ‘বিশ্বের জ্বালানীর উৎসে’ হামলা চালিয়েছে।

এর আগে ইয়েমেনের সেনাবাহিনী শুক্রবার ঘোষণা করে, তারা রিয়াদে আরামকোর একটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালিয়েছে। ইয়েমেনের সশস্ত্র বাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইয়াহিয়া সারি’ বলেন, শুক্রবার তার বাহিনী রিয়াদে আরামকোর একটি স্থাপনায় ছয়টি ড্রোন ব্যবহার করে হামলা চালিয়েছে।

তিনি বলেন, সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের আগ্রাসন ও ইয়েমেনের ওপর ওই জোটের নিপীড়নমূলক অবরোধের প্রতিশোধ নিতে এ হামলা চালানো হয়েছে। যতদিন আগ্রাসন বন্ধ ও অবরোধ প্রত্যাহার করা না হবে ততদিন ক্রমবর্ধমান হারে এরকম প্রতিশোধমূলক হামলা চলবে বলে তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

আমেরিকা ও সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ আরো কিছু দেশের পৃষ্ঠপোষকতায় সৌদি আরব ২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে ইয়েমেনকে জল, স্থল ও আকাশপথে অবরুদ্ধ করে দেশটির ওপর ভয়াবহ আগ্রাসন চালিয়ে আসছে।