আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের উত্তরে পারওয়ান প্রদেশে আকস্মিক বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫০-এ দাঁড়িয়েছে। গতকাল (বুধবার) ভোরের দিকে কাবুল সীমান্তবর্তী পারওয়ান প্রদেশে এ ভয়াবহ বন্যা শুরু হয়। বহু নারী-পুরুষ ও শিশু বন্যার পানির প্রবল স্রোতের মুখে পড়েন। পার্সটুডে।

বন্যার তোড়ে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ৯০০ পরিবারকে দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছে। বন্যায় দেড় হাজার বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়া, ২৫০ ব্যক্তি আহত হয়েছে। প্রবল বৃষ্টি থেকে এই বন্যা শুরু হয়।

বহু মানুষ এখনো নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তামিম আজিমি। তিনি বলেন, “আমরা আশংকা করছি যে, অনেকেই এখনো পাথর ও কাদার মধ্যে চাপা পড়ে আছে।” তিনি বলেন, বন্যায় ক্ষয়-ক্ষতির মাত্রা অনেক বেশি এবং পরিস্থিতি জটিল।

আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা, সরকারি কর্মকর্তা ও সাধারণ লোকজন নিখোঁজ ব্যক্তিদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে। তবে রাস্তা-ঘাট কাদা, মাটি ও পাথরে চাপা পড়ার কারণে উদ্ধার অভিযান বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।