পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে ভারতের বিপক্ষে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। আট উইকেটে ভারতকে হারিয়ে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল এউইন মরগ্যানের দল।

শুক্রবার রাতে আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১২৪ রান সংগ্রহ করে ভারত।

শুরু থেকে স্বাগতিকরা দাঁড়াতে পারেনি। লোকেশ রাহুল এক রান করে আউট হওয়ার পরে ধাক্কা খায় ভারত। এরপরই অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে শূন্য রান নিয়ে সাজঘরে ফেরান আদিল রশিদ। তারপরই শিখর ধাওয়ান চার রানে আউট হন।

২০ রানে ৩ উইকেটের পতন হয় টিম ইন্ডিয়ার। টপ অর্ডারেই যখন কোনও ভরসা নেই তখন হাল ধরেন শ্রেয়াস আইয়ার। কিন্তু ভাগ্যের খেলায় আসা যাওয়ার মধ্যেই ছিল তারা।

ঋষভ পন্থ ২১ রানে বিদায় নেন। শ্রেয়াসের সঙ্গে যোগ দিয়ে হার্দিক পান্ডিয়া ৫০ রানের জুটি গড়েন। তবে ব্যক্তিগত ১৯ রানে আউট হন পান্ডিয়া। রানের খাতা না খুলেই মাঠ ছাড়েন শার্দুল ঠাকুর।

শেষ ওভার পর্যন্ত দলকে টেনে নেন শ্রেয়াস। ২০ তম ওভারের তৃতীয় বলে বিদায়ের আগে ৬৭ রান এসেছে তার ব্যাট থেকে।

৩ বলে ৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন শার্দুল ঠাকুর। ৩ বলে সাত রান করে তার সঙ্গে ক্রিজে ছিলেন আক্সার প্যাটেল।

ইংলিশদের হয়ে জোফরা আর্চার ৩টি উইকেট নিয়েছেন। আদিল রশিদ, মার্ক উড, ক্রিস জর্ডান ও বেন স্টোকস ১টি উইকেট নেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে জস বাটলার ও জেসন রয় ৭২ রানের জুটি গড়েন। বাটলার আউট হয়েছেন ২৮ রান করে। দুই চার এবং এক ছক্কা মারেন তিনি। অপরদিকে জেসন রয় এক রানের জন্য ফিফটির মুখ দেখলেন না। ৪৯ রানে তাকে থামিয়ে দেন ওয়াশিংটন সুন্দর। রিভিউ নিয়েও শেষ রক্ষা হলো না এই ওপেনারের।

এরপরই বাকি রানগুলোর জন্য আর ইংলিশদের তেমন কোনও আর কষ্ট করতে হয়নি। জনি বেয়ারস্টো ও ডেভিড মালানের ২৬ বলে ৪১ রানের জুটিতে জয়ের দেখা মিলে ইংল্যান্ডের। মালান ২৪ ও বেয়ারস্টো ২৬ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন।

ভারতীয়দের হয়ে আক্সার প্যাটেল ও ওয়াশিংটন সুন্দর ১টি উইকেট নেন। ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হয়েছেন ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চার।

রোববার ১৪ মার্চ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে দুই দল। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি।